ওয়ার্ডপ্রেস সাইট স্পিড করে নিন।

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরির পর সব ক্লায়েন্টকেই অভিযোগ করতে শোনা যায় যে তার ওয়েবসাইটটি স্লো। কিন্তু কয়েকটি ট্রিকস এর মাধ‍্যমে আপনি সহজেই ওয়েব সাইট স্লো হওয়া থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

একটি ওয়েবসাইট কেন স্লো হয় তা আমাদের আগে জানতে হবে। বিভিন্ন কারনে ওয়েবসাইট স্লো হতে পারে। তার মধ‍্যে প্রধান তিনটি কারন হল

1। ভারী ভারী ইমেজ
2। যত্রতত্র জাভাস্ক্রীপ্ট
3। ডাটাবেজ এর কানেকশন

অামাদের এখন এই তিনটা বিষয় ফিক্স করতে হবে। দেখা গেছে এই তিনটি বিষয় ফিক্স করতে পারলেই শতকরা 70% ওয়েবসাইট এর স্পীড অনেকাংশে বেড়ে যায়।

আসুন এগুলো সম্পর্কে একটু বিস্তারিত জানার চেষ্টা করি:

1। ভারী ভারী ইমেজ: একটা ওয়েবসাইট বানাতে গেলে আমরা বিভিন্ন ধরনের ইমেজ ব‍্যবহার করি, ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট হলে তো আমরা মিডিয়া ম‍্যানেজার দিয়ে যেকোন সাইজের ইমেজ আপলোড করি।

কিন্তু এই কাজটি কখনোই করবেন না। সবসময় অপটিমাইজ করা ইমেজ আপলোড করতে হবে। আপনার ইমেজটি যদি ট্রান্সপারেন্ট না হয় তাহলে সেটিকে জেপিজি মুডে সেভ করুন। ট্রান্সপারেন্ট ইমেজ হলে সেটাকে পিএনজিতে সেভ করুন এবং চাইলে tinypng.org ওয়েবসাইটের মাধ‍্যমে সেটাকে অপটিমাইজ করতে পারেন।

আপনার যেখানে যে সাইজের ইমেজ লাগবে সেই সাইজেরই ব‍্যবহার করুন। অনেকসময় দেখা যায় বড় সাইজের ইমেজ নিয়ে সেটাকে সিএসএস দিয়ে ছোট করে দিচ্ছেন, এটা পরিহার করুন।

এভাবে ইমেজ কমপ্রেস করে আপনি আপনার সাইটের স্পীড বাড়াতে পারবেন।

2। যত্রতত্র জাভাস্ক্রীপ্ট: একটি ওয়েবসাইট বানাতে হলে জাভাস্ক্রীপ্ট এর কোন বিকল্প নেই। কিন্তু যত্রতত্র জাভাস্ক্রীপ্ট এর ব‍্যবহার কমাতে হবে।

যেই .js ফাইলগুলো ব‍্যবহার করছেন না সেগুলা ডিলিট করতে হবে। ডিলিট করার সময় খেয়াল করবেন যেন header.php অথবা footer.php থেকে সেগুলোর নাম ও যেন ডিলিট করা হয়।

অনেক জাভাস্ক্রীপ্ট ফাইল অালাদা অালাদা কল করবেন না, কারন ব্রাউজার প্রত‍্যেকটি ফাইলের জন‍্য সার্ভারের কাছে আলাদা আলাদা রিকুয়েস্ট পাঠায়, যত রিকুয়েস্ট কম পাঠাবে আপনার ওয়েবসাইট ততই সুপার ফাস্ট হবে।

এছাড়াও আপনার ওয়েবসাইটের জাভাস্ক্রীপ্ট ফাইল কমপ্রেস করে দিবেন। তাহলে সেগুলোর সাইজ কমে যাবে এবং সুপার ফাস্ট লোড হবে।

একটা ওয়েবসাইটের HTML, CSS, JS কমপ্রেস করার জন‍্য ওয়ার্ডপ্রেসের সবচাইতে ভালো প্লাগিনের নাম হল: Autoptimize। এটা দিয়ে সহজেই এই কাজটি করতে পারবেন।

3। ডাটাবেজ কানেকশন: কোন সার্ভারের ডাটাবেজ কানেকশন এর একটি লিমিট থাকে। একসাথে অনেক ভিজিটর যখন একটি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে, তখন তার কানেকশনের সীমা অতিক্রম করে। তখন আমরা দেখতে পাই “Error establishing database connection” লেখাটি।

এটা ঠিক করতে হলে আপনাকে ডাটাবেজকেও অপটিমাইজেশন করতে হবে। ডাটাবেজ অপটিমাইজেশন ও ক‍্যাশিং এর জন‍্য সবচাইতে ভালো প্লাগিন হল WP Total Cache প্লাগিন। কিন্তু এই প্লাগিন এর অনেকগুলো অপশন থাকায় এটা ব‍্যবহার করতে অনেক অসুবিধা হয়। এটি ব‍্যবহারের জন‍্য প্রথম কমেন্টের লিংকটি দেখুন।

অাশাকরি অাপনার ওয়েবসাইটটি আর স্লো থাকবে না। লেখাটি পছন্দ হলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলে যাবেন না।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

w

Connecting to %s