Google Fetch tool ব্যবহার করে দ্রুত ইনডেক্স করে নিন আপনার সাইটের পোস্ট

ইদানিং একটা প্রবণতা বেশ লক্ষণীয় বিষয় হয়ে উঠেছে বিশেষ করে আমাদের বাংলাদেশীদের মধ্যে। একে অন্যের ব্লগ পোস্ট কপি করে নিজের সাইটে ব্যবহার করছে। যদিও ব্যপারতা অত্যন্ত লজ্জার তবুও নকল বাজেরা এটা করেই আসছে। এমন কি তারা সরাসরি অন্যের ওয়েব সাইটের (কোম্পানির) সার্ভিস সম্পর্কিত লেখা সরাসরি কপি করতেও লজ্জা করছে না। যারা কপি করছেন তারা হয়তো জানেন ই না যে এই কন্টেন্ট তাদের সাইটের জন্য কোন উপকারেই আসবে না।বরং এটা তাদের সাইটের জন্য ক্ষতির কারন ছাড়া আর কিছুই না।Google fetch tools

নকল বাজরা নকল করবেই, কারন “চুর না শুনে ধর্মের কাহিনী” প্রবাদ টা সবারই জানা। তবে আমাদেরকেও বসে থাকলে চলবে না। যেহেতু বাংলা লিখা ব্লগ বা আর্টিকেল এখনও সার্চ ইঞ্জিন এর জন্য ফ্রেন্ডলি না, গুগল প্লাগিরিদম ভালো কাজ করে না তাই নকল বাজেরা এই সুবিধা টা কাজে লাগাতে চাচ্ছে।

যখন আপনারা ব্লগ পোস্ট লিখেন তখন আপনারা অনেক সময় ব্যয় করেন নিম্নলিখিত বিষয়গুলো নিয়েঃ

  • নতুন ব্লগ পোস্ট এর জন্য বিষয় নির্ধারণ করেন
  • প্রচুর গবেষণা করেন বিষয়টা নিয়ে
  • উপযূক্ত কীওয়ার্ড খুজে বের করতে
  • ব্লগ পোস্ট কে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন করতে অনেক সময় ব্যয় করেন
  • ব্লগ পোস্ট কে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করতে

তো যারা অনেক কষ্ট করে আর্টিকেল লিখছেন, তারা তো চাইবেন না তাদের লিখাটা অন্যের নামে ইনডেক্স হোক। এ ব্যাপারে গুগলের আইন খুবই কঠিন, আপনি যদি প্রমান করতে পারেন কনটেন্ট এর মালিক আপনিই তাহলে গুগল ওই সাইটের কনটেন্ট ব্লক করে দিবে। এমনকি ওই সাইট তাদের সার্চ ইঙ্গিন থেকে বের করে দিবে। তবে মনে রাখতে হবে যার লেখা গুগল প্রথম ইনডেক্স করবে সেটাকেই গুগল আর্টিকেল এর মালিক হিসেবে ধরে নিবে আরও বিস্তারিত জানতে পারবেন নিচের লিংক থেকে।

https://support.google.com/legal/answer/3110420
https://support.google.com/legal/answer/1120734

বেশ কিছুদিন যাবত আমার কিছু বন্ধু আমাকে রিকুয়েস্ট করছিল, কিভাবে গুগল ফেচ টুল ব্যবহার করা যায় তার উপর লেখার জন্য। সারাদিন কঠোর পরিশ্রমের পর আজকে একটু সময় পাইলাম গুগল ফেচ টুল সম্পর্কে কিছু লেখার। সুতরাং বন্ধুরা মনোযোগ দিয়ে আমার লেখাটি পরুন, আশা করি কিভাবে গুগল ফেচ টুল ব্যবহার করা যায় সে সম্পর্কে আপানারা পরিপূর্ণ একটা ধারনা পাবেন। ও আপনার কষ্ট করে লেখা আপনার আর্টিকেল এর মালিক আপনিই হবেন।

একটি লেখা ব্লগে পাবলিশ করার পর তা গুগল সার্চ রেজাল্ট এ শো হতে কয়েকদিন সময় লেগে যেতে পারে। তাই লেখাটি ব্লগ এ পাবলিশ করার পর সেটিকে সার্চ ইঞ্জিন এ সাবমিট করা লাগে।

আসলে প্রকৃত ব্যপার হল, কেন আপানাকে এটি করতে হবে। একজন আদর্শ ব্লগার এর ক্ষেত্রে এটি কোন ব্যপারিই না, যখনি সে একটি লেখা পাবলিশ করবে সেটি গুগল এর প্রথম পেজ এ শো হবে। তাহলে কেন আমরা এটি করতে চাই।

ব্লগ পোস্ট কেন দ্রুত ইন্ডেক্সিং করা গুরুত্বপূর্ণ?

এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য আমি একটি উদাহরন দিব। বেশ, ধরি, A এবং B দুইটি ওয়েবসাইট। ওয়েবসাইট A প্রতিদিন ৩-৪ টি আর্টিকেল পাবলিশ করে অন্যদিকে ওয়েবসাইট B এর একটি আর্টিকেল পাবলিশ করতে ৪-৫ দিন লাগে। এইজন্য এই জ্ঞান ব্যবহার করে গুগল প্রতি ঘণ্টায় ওয়েবসাইট ইনডেক্স করে। এখন যদি ওয়েবসাইট B একটি খুব ভালো আকর্ষণীয় একটি বিষয়ের উপর আর্টিকেল পাবলিশ করে এবং তারপর যদি ওয়েবসাইট A সেই আর্টিকেল টি নকল করে এবং সেটিকে সামান্য পরিবর্তন করে তার সাইট এ পাবলিশ করে, তাহলে সার্চ ইঞ্জিন ইনডেক্স করবে প্রথমে ওয়েবসাইট A এর আর্টিকেল এবং তারপর পাবলিশ করবে ওয়েবসাইট B এর আর্টিকেল যেখান থেকে আর্টিকেল নকল করা হয়েছে।

যখন সার্চ ইঞ্জিন ওয়েব সাইট B এর আর্টিকেল ইনডেক্স করে তখন ওয়েব সাইট B এর আর্টিকেল কে ধরে নেয় সে এটি নকল করেছে ওয়েবসাইট A থেকে। এইক্ষেত্রে ওয়েবসাইট B কে গুগল শাস্তি দিবে।আর অন্যদিকে ওয়েবসাইট A পাবে পুরস্কার। এটা কেমন হল বেপারটা? ওয়েবসাইট B সর্ব প্রথম আর্টিকেল টি লিখল আর শাস্তিও পেল তাউ আবার নকল করার জন্য। এইজন্য এই ক্ষতি থেকে বাঁচার জন্য, আমাদের উচিত নতুন ব্লগ পোস্ট পাবলিশ করার সাথে সাথে ইউআরএল গুগল এ সাবমিট করা। কিন্তু কিভাবে তা করবেন? দুটি পথ অনুসরণ করতে পারেন,

১. XML sitemap মাধ্যমে। (আমার পরবর্তী লেখা এক্সএমএল সাইটমেপ নিয়ে বিস্তারিত থাকবে। )

২. Google Fetch Tools ব্যাবহার করে।

দুটি পন্থাই #Google_Webmaster_Tools এর অন্তর্গত।

কিভাবে গুগল ফেচ টুল ব্যবহার করা যায় ব্লগ পোস্ট কে দ্রুত গুগল এ ইনডেক্স করতেঃ

এটি একটি সহজ পদ্ধতি যার মাধ্যমে আমরা আমাদের নতুন লেখা ব্লগ পোস্ট গুগল এ সাবমিট করতে পারব। গুগল সরাসরি এটি ইনডেক্স করবে এবং একটি ভার্চুয়াল কপিরাইট তৈরি হবে এই আর্টিকেল এর জন্য। আসুন দেখে নেওয়া যাক, কিভাবে একটি নতুন আর্টিকেল লিখার পর সেটিকে গুগল এ সাবমিট করবেন।

  1. প্রথমেই গুগল ওয়েবমাস্টার টুল এ লগিন করুন এবং ব্লগ সিলেক্ট করুন যার পোস্ট আপনি অ্যাড করতে যাচ্ছেন।
  2. ক্রল মেনু এর নিচে লেফট সাইডবার এ দেখুন সেখানে “Fetch as Google” লিখা বাটন আছে, তার উপর ক্লিক করুন।
  3. ক্লিক করার পর দেখবেন, সেখানে একটি ঘর আছে, যেখানে আপনার ডোমেইন নেইম prefix হিসাবে আছে। তারপর আপনাকে URL থেকে প্রথম অংশটি বাদ দিতে হবে। যেমন- যদি আপনি নিন্মুক্ত URL টি “technocr.com/newblogpost” সাবমিট করতে চান, তাহলে আপনাকে প্রথম অংশটি বাদ দিতে হবে এবং শুধু এই “newblogpost” অংশটি রাখতে হবে। আমি এখানে ব্লগ পোস্ট টি কিভাবে গুগল ইনডেক্স এ অ্যাড করতে হয় দেখালাম Fetch as Google Tool ব্যবহার করে।
  4. যখন আপনি URL এন্টার করবেন, তখন নিচে একটি বাটন শো হবে তা হল “Submit To Index”
  5. যখন আপনি “Submit To Index” বাটন এ ক্লিক করবেন, তখন একটি পপ আপ উইন্ডো ওপেন হবে।
  6. এখন আপনি “Crawl only this URL” সিলেক্ট করে Go button এ ক্লিক করবেন।এভাবেই একটি নতুন ব্লগ পোস্ট কে আপনি গুগল এ ইনডেক্স করাতে পারেন। যাই হউক, যদি আপনারা আরও নতুন কিছু জানতে চান, তাহলে আমার নিচের কথা গুলোও পরেন ধৈর্য সহকারে, আশা করি আমি আপনাদের আরও ভালো কিছু উপহার দিব।

Google fetch

আপনি তো গুগল কে অলরেডি বলে দিছেন আপনার নতুন ব্লগ পোস্ট সম্পর্কে, তো এখন আপনি চাচ্ছেন তা অন্য অন্য সার্চ ইঞ্জিন কে জানাতে। তা করার জন্য আমরা যেটি করতে পারি, সেটা হল ping service। সব সার্চ ইঞ্জিন কে পিং করে জানিয়ে দিতে হবে যে, আপনার সাইট এ কিছু নতুন পরিবর্তন আসছে।

পিং করার জন্য আপনারা ২ টি পিং সার্ভিস ব্যবহার করতে পারেন। যেমন- ping-o-matic অথবা blog Pingler অথবা অন্য কোন পিং সার্ভিস যা আপনি পছন্দ করেন। এখন আপনি যেকোনো একটা তে ডুকেন এবং আপনার ব্লগ এর বর্ণনা এতে অ্যাড করেন।

যদি আপনারা আমার মত অলস হয়ে থাকেন, তাহলে আমি আপনাদের একটি অটোমেটিক পিং করার একটি আইডিয়া দিতে পারি।

অটোমেটিক পিংগিং (ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহারকারিদের জন্য )

১। প্রথমে url ট্রান্সফার করেন যা ধারন করবে সব ডাউনলোড যা পিং করা হবে।

২। আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড ওপেন করেন

৩। তারপর Settings > Writing Settings এ যান

৪। সেখানে আপনি দেখতে পারবেন একটি টেক্সট বক্স যেখানে লেখা আছে “Update Service“

৫। সেখানে আপনি খুব সহজেই ফাইল এর কন্টেন্ট paste করেন যা আপনি ডাউনলোড করেছিলেন।

এভাবেই আপনি আপনার নতুন ব্লগ পোস্ট কে গুগল এ সাবমিট করার পাশাপাশি পিং করার মাধ্যমে অন্য অন্য সার্চ ইঞ্জিন কেউ জানাতে পারেন আপনার নতুন ব্লগ পোস্ট সম্পর্কে। আজকের মতো এখানেই শেষ করছি। যদি আপনাদের এই আর্টিকেল টি ভালো লাগে, তাহলে তা শেয়ার করতে ভুলবেন না আপনাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

link; http://mdnazmulislam.com/bangla-blog/google-fetch-tool-%E0%A6%AC%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%AC%E0%A6%B9%E0%A6%BE%E0%A6%B0/

2 comments

  1. আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ আমার ব্লগ পোস্ট টা সরাসরি কপি করে আপনার সাইতে দেওয়ার জন্য। প্রশ্ন হচ্ছে, আমার সাইতে লিঙ্ক দিলে কি সমস্যা ছিল?
    http://mdnazmulislam.com/bangla-blog/google-fetch-tool-%E0%A6%AC%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%AC%E0%A6%B9%E0%A6%BE%E0%A6%B0/

    1. আমি সরাসরিই কপি করছি আর দেখুন এইটা সংগ্রীহিত নিউজ সেকশনে দেওয়া। তাই সোর্স দেইনাই। এইটা তো আমার না বলেই দিছি।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s