নাটকীয়ভাবে মুদ্রা বিনিময় নীতি বদলাল সুইজারল্যান্ড

বৃহস্পতিবার নাটকীয় এক ঘোষণার মাধ্যমে তিন বছর ধরে ইউরোর বিপরীতে সুইস ফ্রাঁর মান ধরে রাখার নীতি উঠিয়ে নিল সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ফলে সুইস স্টকের মূল্য কমে যাওয়ার পাশাপাশি এক ধাক্কায় প্রায় ৩০ শতাংশ বেড়েছে ফ্রাঁর মান। খবর এএফপি।

তিন বছর ধরে ইউরোর বিপরীতে ন্যূনতম ১ দশমিক ২ ফ্রাঁ মান বেঁধে রেখেছে সুইজারল্যান্ড ন্যাশনাল ব্যাংক (এসএনবি)। গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকটি জানায়, তারা আর এ ন্যূনতম বিনিময় হার নীতি অব্যাহত রাখবে না। এ সিদ্ধান্তের কারণ হিসেবে এসএনবি জানায়, তাদের মুদ্রাটি এখন আর আগের মতো অতিমূল্যায়িত নয় এবং দেশের রফতানিনির্ভর অর্থনীতিতেও এ বিষয়ে সমন্বয়ের সময় হয়েছে।

কিন্তু কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এ ঘোষণার পর পরই সুইস ফ্রাঁর মান ২৯ শতাংশ বেড়ে ইউরোর বিপরীতে দাঁড়িয়েছে শূন্য দশমিক ৮৫১৭-এ। ডলারের বিপরীতেও ফ্রাঁর মান বেড়েছে, বর্তমানে প্রতি ডলারের বিপরীতে ফ্রাঁর মান ১ দশমিক ১৩৬২।

শক্তিশালী ফ্রাঁর কারণে রফতানি আরো ব্যয়বহুল হয়ে পড়তে পারে, ফলে কমতে পারে আয়ের পরিমাণ— এ ভয়ে অধিকাংশ বিনিয়োগকারী তাদের হাতে থাকা বিভিন্ন সুইস কোম্পানির শেয়ার বিক্রি করতে হুড়াহুড়ি শুরু করে দেয়। সুইস ঘড়ি নির্মাতা সয়াচের শেয়ারদর কমেছে ১৫ শতাংশ, অন্যদিকে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিলাসপণ্য নির্মাতা রিচিমন্টের শেয়ারের দাম কমেছে ১৪ শতাংশ।

দেশের রফতানিমুখী শিল্পকে সুরক্ষার জন্য ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ফ্রাঁর বিপরীতে অন্যান্য মুদ্রার বিনিময় হার অনেকটা স্থির রেখেছে এসএনবি। এজন্য বিপুল পরিমাণে বৈদেশিক মুদ্রা কিনে রাখত কেন্দ্রীয় ব্যাংকটি।

ইউরোজোনের সার্বভৌম ঋণ সংকটের সময়ে এ ন্যূনতম বিনিময় হার ধার্য করা হয়। সম্প্রতি রাশিয়ায় রুবল সংকট শুরু হওয়ায় বেশ চাপে আছে ফ্রাঁ। মাত্র কয়েক দিন আগেও ইউরোর বিপরীতে ১ দশমিক ২ ফ্রাঁর বিনিময় হারটিকে নিজেদের মুদ্রানীতির স্তম্ভ বলে আখ্যা দিয়েছিল এসএনবি। তাই নীতিগত এ ইউটার্ন হতবাক করে দিয়েছে সবাইকে।

বেরেনবার্গের বিশ্লেষক ক্রিশ্চিয়ান শুলজ একে আখ্যা দিলেন ‘সুইস বোম্বশেল’ হিসেবে। ক্যাপিটাল ইকোনমিকস জানিয়েছে, ‘আমরা ধারণা করছি, কেন্দ্রীয় ব্যাংকটি অচিরেই ইউরোর বিপরীতে মুদ্রাটির মূল্যায়নে হস্তক্ষেপ করবে।’

ফ্রাঁর মান অনাকর্ষণীয় করে তুলতে সুদের হার কমিয়ে ঋণাত্মকের ঘরে নামিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছে এসএনবি। ফলে কিছু নির্দিষ্ট ব্যাংক আমানতের ক্ষেত্রে সুদের হার শূন্য দশমিক ৫ শতাংশীয় পয়েন্ট কমে তা এখন ঋণাত্মক শূন্য দশমিক ৭৫ শতাংশে নেমে এসেছে।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s