৫০০ ধনীর গোপন মন্ত্র, ধনাঢ্য হতে অব্যর্থ ১৩টি উপায়

একজন ব্যবসায়ী অ্যান্ড্রু কার্নেগি। তার ক্যারিয়ারে একজন সাংবাদিকের অভিজ্ঞ পরামর্শ পেয়েছিলেন যার নাম নেপোলিয়ন হিল। আজ থেকে ৭৮ বছর আগে এই সাংবাদিক ৫০০ জন ধনী মানুষের জীবনের ওপর গবেষণা করে একটি বই লিখেছিলেন। ‘থিঙ্ক অ্যান্ড গ্রো রিচ’ বইটি ছিলো ১৯৩৭ সালে বেস্ট সেলারদের মধ্যে একটি। তার এই ফর্মুলা মেনে নিয়ে দেখতে দেখতে দারুণ ধনী হয়ে ওঠেন কার্নেগি। এই ব্যবসায়ীর মতে, ধনী হওয়ার অব্যর্থ উপায় এগুলো। আপনিও জেনে নিন ধনীদের গোপন সেই মন্ত্র।

১. প্রথমেই আপনাকে ধনী হতে চাইতে হবে। বড় হওয়ার স্বপ্ন, ইচ্ছা এবং পরিকল্পনা নিয়ে এগোতে হবে আপনার। একে নেশায় পরিণত করতে হবে। ধনী হওয়ার আকাঙ্ক্ষা থেকে কখনো সরে আসা চলবে না।

২. লক্ষ্য পূরণে নিজের ওপর বিশ্বাস থাকতে হবে। যারা নিজের প্রচেষ্টায় ধনী হয়েছেন তাদের মতে, ধনী হওয়ার বিষয়টাকে কঠিন ভাবলে চলবে না। একে নিজের অধিকার বলে মনে করতে হবে।

৩. মনে ধনী হওয়ার ইচ্ছাটাকে স্বয়ংক্রিয় রাখতে হবে। অবচেতন মনেও বিষয়টিকে কার্যকর রাখতে হবে। লক্ষ্যের প্রতি আপনার অদম্য আকাঙ্ক্ষা থাকতে হবে।

৪. ধনী হতে শিখে যেতে হবে। এই প্রক্রিয়া সব সময় চলমান রাখতে হবে। শিক্ষণীয় বিষয় ক্যারিয়ারে কাজে লাগিয়ে যেতে হবে।

৫. নতুন আইডিয়া বের করতে হবে কল্পনা ও চিন্তাশক্তি থেকে। কাজেই চিন্তার চাকা সব সময় চালু রাখতে হবে। নতুন নতুন ধারণাই নতুন পথের সন্ধান দেবে।

৬. লক্ষ্য স্থির হলে পরিকল্পনা প্রয়োজন। পরিকল্পিতভাবে এগিয়ে যেতে পারলে লক্ষ্য অর্জন সহজ হয়।

৭. সঠিক পরিস্থিতিতে দ্রুত ও সঠিক সিদ্ধান্ত আপনাকে দারুণ ফলাফল এনে দিতে পারে। কাজেই সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারদর্শী হতে হবে।

৮. ধৈর্য্য এ ক্ষেত্রে বড় সহায়ক হয়ে ওঠে। যা চাইছেন তা না অর্জন করা পর্যন্ত থামবেন না। ইচ্ছাশক্তি অদম্য হতে হবে। সফলতা হাতের মুঠোয় না আসা পর্যন্ত কোনো অবস্থাতেই ধৈর্য্যহীন হওয়া যাবে না।

৯. এগিয়ে যেতে বন্ধু ও পরিচিত মহলের সহায়তা প্রয়োজন হয়। কাজেই আপনার চারপাশে সফল ব্যক্তিদের আনগোনা থাকা চাই। অর্থাৎ, আপনি নিজেই সফল ব্যক্তিদের আশপাশে থাকবেন।

১০. স্বাস্থ্যকর যৌনজীবন মানুষকে সুস্থতা দিতে পারে। তাকে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা জোগায়। তাই একজন আদর্শ সঙ্গী-সঙ্গিনী লক্ষ্য অর্জনে জরুরি বলে মনে করেছেন সাংবাদিক।

১১. এটা দারুণ এক চর্চা। অবচেতন মনে ইতিবাচক বিষয়গুলোকে গ্রহণ করে নেওয়া এবং নেতিবাচক আবেগকে ত্যাগ করার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। মানুষের অবচেতন মন কিন্তু বেশ কাজের হয়ে উঠতে পারে। তাই একে কাজে লাগানোর চর্চা করুন।

১২. মস্তিষ্ককে উর্বর করতে স্মার্ট মানুষদের কাছ থেকে শেখার চেষ্টা করুন। স্মার্ট মানুষদের আশপাশে থাকুন। তাদের চলাফেরা ও কাজের ধরন লক্ষ্য করুন। তাদের অনুসরণ করার চেষ্টা করুন।

১৩. সিক্সথ সেন্স বলে একটা কথা আছে। ষষ্ঠেন্দ্রিয়ের ইশারা ধরার চেষ্টা করুন। এর ওপর বিশ্বাস রাখুন। আপনার চেতন মনের ভুলও সিক্সথ সেন্স ধরিয়ে দিতে পারে। ধনীরা নিজের চরম মুহূর্তে ষষ্ঠ ইন্দ্রিয়ের ওপর ভরসা করেন। সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার
– See more at: http://www.kalerkantho.com/online/lifestyle/2015/07/04/241272#sthash.ZPvqRKh2.dpuf

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s